তৃতীয় লিঙ্গ ও বেদে সম্প্রদায়ের মানুষকে সহায়তা এম এ হাসেম ট্রাস্টের

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত: ২৯ এপ্রিল ২০২১ ২২:৫৩; আপডেট: ২৫ অক্টোবর ২০২১ ০৩:৫১

মানুষ মাত্রই জন্ম-মৃত্যুর অধীন। পৃথিবীতে জন্মগ্রহণ করলে একদিন তাকে মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করতে হবে এটা চিরন্তন সত্য। আর মৃত্যুর মধ্য দিয়েই সে পৃথিবী থেকে চির বিদায় নেয়। কিন্তু পেছনে পড়ে থাকে তার মহৎ কর্মের ফসল। যে কর্মের জন্য সে মরে যাওয়ার পরও পৃথিবীতে যুগ যুগ বেঁচে থাকে। এমনই একজন পারটেক্স গ্রুপের কর্ণধার মরহুম এম. এ. হাসেম।

কীর্তিমানের মৃত্যু নাই ‘মানুষের পাশে মানুষের মাঝে’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে মহামারিকালে দরিদ্র মানুষকে খাদ্য দিয়ে সহায়তা করছে এম. এ. হাসেম ট্রাস্ট সমাজের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠী, তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ, বেদে সম্প্রদায়, অসহায়, দুস্থ মানুষের জন্য ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমানের কাছে এ খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন পারটেক্স পরিবারের পক্ষে হেড অব পাবলিক রিলেশন রাশেদ চৌধুরী।

এসময় বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন (ক্র্যাব) এর সভাপতি মিজান মালিকসহ অন্যান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।
খাদ্য সামগ্রীর প্রতিটি প্যাকেটে ছিলঃ ৫ কেজি চাল (মিনিকেট), ৫ কেজি আলু, তেল ১ লিটার, পেঁয়াজ ২ কেজি, সেমাই ১ প্যাকেট, লবন ১ কেজি, পোলাও চাল ১ কেজি, চিনি ১ কেজি, ছোলা ১ কেজি, সাবান ১ পিস, মসুর ডাল ১ কেজি।


উল্লেখ্য, গত বছর মহামারী করোনায় এম. এ. হাসেমের নেতৃত্বে পারটেক্স পরিবার এর পক্ষ থেকে বিভিন্ন মাধ্যমে মোট ৩০ হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দেয়া হয়। এই খাদ্য সহায়তা ভবিষ্যতেও পারটেক্স পরিবারের পক্ষ থেকে অব্যহত থাকবে বলে পরিবারটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

ব্যবসায়ী বিশিষ্ট শিল্পপতি ও পারটেক্স গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা মরহুম এম এ হাসেম। ২০০১ সালের জাতীয় নির্বাচনে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ আসন থেকে বিএনপির প্রার্থী হয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। ওই সরকারের মেয়াদ শেষে রাজনৈতিক পালাবদলের মধ্যে রাষ্ট্রক্ষমতা চলে যায় সেনা নিয়ন্ত্রিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের হাতে। আরও অনেক ব্যবসায়ী, রাজনীতিবিদের মতো হাসেমও তখন গ্রেপ্তার হন। পরে মুক্তি পেলেও তিনি রাজনীতিতে নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়েন। ২০১৬ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে বিএনপি ছাড়ার ঘোষণা দেন তিনি।

স্বাধীনতার পর তিনি আয়রন, স্টিল, সিমেন্ট, চিনি, চাল, মসলা, গম, লবণ, দুধসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় পণ্য আমদানির ব্যবসা শুরু করেন। নানা ধরনের ব্যবসার মাঝেই তিনি ধীরে ধীরে প্রতিষ্ঠা করেন পারটেক্স গ্রুপ।

অর্ধ শতক আগে তামাক দিয়ে ব্যবসা শুরু করা হাসেম গত পাঁচ দশকে তার বাণিজ্যের বিস্তার ঘটিয়েছেন আবাসন, আমদানি-রপ্তানি, পার্টিকেল বোর্ড, ইস্পাত, প্লাস্টিক, ভোগ্যপণ্য, ব্যাংক-বীমাসহ বিভিন্ন খাতে।

নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি ট্রাস্টের চেয়ারম্যান হাসেম এক সময় সিটি ব্যাংক লিমিটেড ও ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদে ছিলেন। জনতা ইনসুরেন্স কোম্পানিও তিনি গড়ে তোলেন।



বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top