অভিনব প্রতারণা, ব্যানারে 'ডিআরইউ' নাম,সংবাদ সম্মেলন করলেন হোটেলে!

অভিনব প্রতারণা, ব্যানারে 'ডিআরইউ' নাম,সংবাদ সম্মেলন করলেন হোটেলে!

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত: ২৮ আগস্ট ২০২১ ০৩:২৩; আপডেট: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১০:১৪

দেশের স্বনামধন্য সিকিউরিটি কোম্পানি ব্ল্যাক ফোর্স সিকিউরিট সার্ভিস লিমিটেডের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে সংবাদ সম্মেলন করতে গিয়ে অভিনব প্রতারণা করেছেন চাকরিচ্যুত হওয়া রাজু আহমেদ নামে এক ব্যক্তি।
অনুসন্ধানে জানা যায়, প্রতারক রাজু ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) এর নাম ব্যানারে ব্যবহার কররলেও তিনি ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির কোথাও সংবাদ সম্মেলন করতে দেখা যায় নাই, অভিযোগ রয়েছে রাজধানীর একটি হোটেলে বসে সংবাদ সম্মেলন করেন তারা। এতে প্রশাসনিক কোন ধরনের অনুমতি ছিলোনা।

এসময় সংবাদ সম্মেলনে রাজুসহ চারজন উপস্থিত ছিলেন,তার মধ্যে তিন জনের সাথেই সিকিউরিটি কোম্পানি ব্ল্যাক ফোর্সের সাথে কোন ধরণের সম্পর্ক নেই, এর মধ্যে জুয়েল নামে এক ব্যক্তি তিনি নিজেই একটি সিকিউরিটি কোম্পানির মালিক, এছাড়াও সংবাদ সম্মেলনে যে তরুণীকে দেখা য়ায়, তার নাম বৃষ্টি, অভিযোগ রয়েছে তিনি একজন পেশাদার পতিতা, তাকে সংবাদ সম্মেলনে চুক্তিভিত্তিক ভাড়া করে আনা হয়েছে।

আপত্তিকর অবস্থায় জুয়েল ও বৃষ্টি

 

এদিকে নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা যায়, সাবেক স্বঘোষিত জেনারেল ম্যানেজার রাজু আহমেদ নৈতিকস্থখনদায়ে চাকরিচ্যুত হওয়ার পরে থেকেই বেপরোয়া হয়ে উঠে এবং ব্ল্যাক ফোর্স সিকিউরিটি সার্ভিস লিমিটেডের মালিকের কাছে ১০ লক্ষ টাকা দাবী করে বলে জানা যায়। চাহিদামত অর্থ না পেয়ে ব্ল্যাক ফোর্সের মালিককে বিভিন্নভাবে হয়রানি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে তার বিরুদ্ধে।

নির্ভরযোগ্য সূত্রে আরো জানা যায়, প্রতারক রাজু আহমেদ অন্য একটি সিকিউরিটি সার্ভিস "যা ব্ল্যাক ফোর্স সিকিউরিট সার্ভিস লিমিটেডের ব্যবসায়ীর নিকটতম প্রতিদ্বন্দীর সাথে যোগসাজশ হয়ে  ব্ল্যাক ফোর্স সিকিউরিট সার্ভিসকে ব্যবসায়ী ও সামাজিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ করার জন্য নীল নকশা আকেন।

ব্ল্যাক ফোর্স সিকিউরিট সার্ভিস লিমিটেডের ব্যাবস্থাপনা পরিচালক ১০ লক্ষ টাকা দিতে রাজি না হওয়ায় রাজু আহমেদ কিছু লোকজন ভাড়া করে এনে প্রেস কনফারেন্সে এবং মানববন্ধন করবে বলে হুমকিও দেয়, অবশেষে গত ২৬ আগষ্ট কোন প্রকার অনুমতি ছাড়া জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ভাড়া করা লোক নিয়ে এসে মানববন্ধন করবার প্রস্তুতি নিলে।

ভাড়া লোকজনকে অগ্রীম টাকা না দেওয়াতে মানববন্ধন থেকে চলে যায়, এসময় তার ভাড়া করা লোকজন পুলিশকে জানায় আমাদের দুই ঘন্টার জন্য যে টাকা দেবার কথা ছিলো তা দেবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল এখন তা দিচ্ছে না। এই বলে তারা পুলিশের কাছে বিচার চায়।

এবিষয়ে রাজু আহমেদের সাথে কয়েকদফা যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয় নাই।

 



বিষয়:


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top