ম্যারাডোনার মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার

ক্রীড়া ডেস্ক | প্রকাশিত: ৫ নভেম্বর ২০২০ ১০:৩৭; আপডেট: ২৮ জুলাই ২০২১ ১৩:২৬

৬০তম জন্মদিনকে কেন্দ্র করে প্রচুর চাপে ছিলেন ডিয়েগো। খুব আবেগতাড়িত হয়ে পড়েছিলেন, যা তার খাদ্যাভ্যাসে প্রভাব ফেলেছিল। মন ভালো ছিল না। তাই সোমবার বুয়েন্স আইরিসের হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। ‘এখন ডিয়েগো ভালো আছেন। যখন ইচ্ছা হাসপাতাল ছাড়তে পারেন। তিনি নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে নেই। আমার পরিকল্পনা অন্তত ৩ দিন এখানে রাখা এবং তাকে আগে যে চিকিৎসা দিচ্ছিলাম, তাতে কিছুটা সামঞ্জস্য নিয়ে আসা।’ ডিয়েগো ম্যারাডোনাকে নিয়ে এমনটাই বলেছিলেন তার ব্যক্তিগত চিকিৎসক লিওপল্ড লুক।

কিন্তু মঙ্গলবার জানানো হয়েছে, মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার করতে হয়েছে আর্জেন্টাইন ফুটবল ঈশ্বরের। জমাটবাঁধা রক্ত সরিয়ে ফেলা হয়েছে। লুক অভয় দিচ্ছেন, ‘সবকিছু নিয়ন্ত্রণে আছে। রক্ত সরে যাচ্ছে। তাকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।’ হাসপাতালে ম্যারাডোনা খবরটা শুনেই লা প্লাতার হাসপাতালের সামনে জড়ো হয় ভক্তরা। তাদের কণ্ঠে, ব্যানারে কিংবা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে হ্যাশট্যাগে চারদিকে একই সুর, ‘ফুয়েরসা ডিয়েগো।’ যার অর্থ- সৃষ্টিকর্তা আপনাকে শক্তি দিন, ডিয়েগো। অস্কার মেদিনা নামের এক ভক্ত এএফপিকে বলেছেন, ‘স্বাস্থ্য আরেকবার ম্যারাডোনাকে ভোগালো। তবে মানুষের প্রার্থনা আর তার অ্যান্টিবডি সেটি কাটিয়ে উঠতে সাহায্য করেছে। খুব খারাপ লাগছে, কিছু করতেও পারছি না। তবে তিনি সেরে না ওঠা পর্যন্ত তার পাশেই থাকব আমরা।’

মেয়ে জিয়ান্নিনা হাসপাতালে বাবাকে দেখে আসার পর টুইটে বলেছেন, ‘মাত্রই ক্লিনিক থেকে বের হলাম। আমার বাবা, আমার বোন আর আমাকে নিয়ত ভালোবাসা জানানোর জন্য সবাইকে ধন্যবাদ। যারা তার জন্য প্রার্থনা করছেন, তাদেরও ধন্যবাদ।’ ম্যারাডোনার ভাই উগো ম্যারাডোনা অবশ্য ম্যারাডোনার সেরে ওঠার পরের সময় নিয়ে সন্দিহান। ‘নিশ্চিত আগামীকাল ও আবার উল্টোপাল্টা করা শুরু করবে। ও সবার বড় কিন্তু দেখে মনে হয় ও-ই সবার ছোট!’ আর্জেন্টাইন কিংবদন্তির সাবেক মুখপাত্র কোপোলা বিষয়টি নিয়ে বলছিলেন, ‘পরিবার আর মাঠ এ দুটোই পারে ম্যারাডোনাকে বাঁচাতে।’




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top